পাটগ্রামে লক্ষীদেবীর মূর্তি উদ্ধার, স্বর্ণের বলে কৌতুহল

 

লালমিনরহাট প্রতিনিধিঃ
লালমনিরহাটের পাটগ্রামে কোটতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন পুকুরে মাছ ধরার সময় একটি লক্ষ্মী দেবীর মূর্তি হাতে পায় এক জেলে।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারী) সকালে পাটগ্রাম থানা পুলিশ ওই দেবীর মূর্তি উদ্ধার করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ওসি সুমন কুমার মোহন্ত। এর আগে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে পুকুরে মাছ ধরার সময় মূর্তিটি পান এক জেলে।

ওই এলাকায় মুহুর্তে গুজব ছড়িয়ে পরে স্বর্ণের মূর্তি পেয়ে সেই জেলে গা ঢাকা দেয়।

খবর পেয়ে সেই মূর্তি নিজ হেফাজতে নেন পুকুরের মালিক মরহুম মুক্তিযোদ্ধা মনির উদ্দিন আহমেদ প্রধান শিক্ষকের ছেলে শামীম হোসেন(৩০)।
এরপর বিষয়টা জানাজানি হলে আরো বেশি খবর ছড়িয়ে পরে আলোচনায় তুঙ্গে উঠে। মূর্তি নিয়ে ওই এলাকায় শুরু হয় নানান কৌতূহল।

খবর পেয়ে পাটগ্রাম থানা পুলিশ শামীমের কাছ থেকে সেটি উদ্ধার করেন।

পরে পরীক্ষা- নিরীক্ষা করে স্বর্ণাকার কলস রমনীর মূর্তিটি আসলে পিতলের তৈরী। প্রায় দেড়শো বছর আগের রাজা বাদশাদের আমলের হতে পারে। ওজন প্রায় ২৬০ গ্রাম বা ৭৭ ভরি।

পাটগ্রাম থানা ভারপ্রাপ্তকর্মকর্তা ওসি সুমন কুমার মোহন্ত বলেনন, উদ্ধার হওয়া পিতলে মূর্তিটি সরকারি কোষাগারে পাঠানো হবে সেই। তিনি আরও বলেন, এটি লক্ষি দেবীর মুর্তিটি পিতলের তৈরি। স্বার্ণের মূূর্তি কথাটি গুজব মাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published.