পঞ্চগড়ে উদ্ধার হল বিপন্ন প্রজাতির ভারতীয় ময়ূর

পঞ্চগড়ে উদ্ধার করা বিপন্ন প্রজাতির ভারতীয় ময়ূরটিকে দিনাজপুরের রামসাগর নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মানুষের আঘাতে আহত পাখিটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বনবিভাগের কর্মকর্তারা।

এর আগে শুক্রবার (৫ মার্চ) সন্ধ্যায় পাঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার চন্দনবাড়ি ইউনিয়নের বারঘরিয়া এলাকা থেকে ময়ূরটিকে উদ্ধার করা হয়। পরে দেবীগঞ্জ ফরেস্টের রেঞ্জার মধুসুদন বর্মন রাতেই এটিকে সেখান খেকে উদ্ধার করে পঞ্চগড়ে নিয়ে আসেন। শনিবার সকাল ১০টায় পঞ্চগড় থেকে ময়ূরটিকে দিনাজপুর পাঠানো হয়।

পঞ্চগড় বনবিভাগের বিট অফিসার সুলতান মাহমুদ জানান, বিপন্ন প্রজাতির এই ময়ূরটি ওই এলাকায় আসলে স্থানীয় কয়েকজন যুবক বিভিন্নভাবে তাকে আঘাত করে। এতে পাখিটি আহত হয়। পরে স্থানীয়রা আহত ময়ূরটিকে ওই এলাকার মিজানুর রহমানের কাছে রাখেন এবং বনবিভাগকে খবর দেন।

খবর পেয়ে দেবীগঞ্জ ফরেস্টের রেঞ্জার মধুসুদন বর্মন রাতে ময়ূরটিকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় নিয়ে আসেন। পরে পাখিটি পঞ্চগড় বনবিভাগের তত্ত্বাবধানে ছিল। বোদা উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুস সোবহান ময়ূরটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। শনিবার সকালে দেবীগঞ্জ ফরেস্টের রেঞ্জার মধুসুদন বর্মন পাখিটিকে দিনাজপুরের রামসাগর নিয়ে যান।

দেবীগঞ্জ ফরেস্টের রেঞ্জার মধুসুদন বর্মন জানান, স্থানীয় যুবকরা ক্লান্ত ময়ূরটিকে আঘাত করে আহত করে ফেলে। সেখান থেকে উদ্ধার করে বোদা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার মাধ্যমে এটিকে চিকিৎসা দেই। পরে পাখিটিকে পঞ্চগড় বনবিভাগের খাঁচায় রাখা হয়। আমি ময়ূরটিকে দিনাজপুরে নিয়ে যাচ্ছি। এটি একটি ভারতীয় ময়ূর বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.