পঞ্চগড়ের লোকের ধাওয়ায় মারা গেল বিলুপ্ত প্রজাতির নীলগাইটি

পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় বিলুপ্ত প্রজাতির নীলগাইটি স্থানীয় লোকজনের ধাওয়ায় হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছে। বুধবার দুপুরে আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের খোঁচপাড়া এলাকা থেকে মৃত অবস্থায় নীলগাইটি উদ্ধার করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। মৃত নীলগাইটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় জাদুঘরে সংরক্ষেণর জন্য পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ভারত থেকে সীমান্ত পেরিয়ে ওই নীলগাই বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।

পুলিশ, বন বিভাগ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে আটোয়ারীর দাড়খোর সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে নীলগাইটি বাংলাদেশে আসে। এ সময় স্থানীয়রা নীলগাইটি ধরতে তাড়া করে। ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার দৌড়ানোর পর নীলগাইটি মির্জাপুর ইউনিয়নের বারো আউলিয়া এলাকায় পড়ে গিয়ে হাফাতে থাকে। এ সময় স্থানীয় উৎসুক লোকজন চারপাশে ঘিরে ধরে নীলগাইটির। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই মারা যায় ওই নীলগাই। পরে খবর পেয়ে আটোয়ারী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নীলগাইটি উদ্ধার করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে। এ সময় মৃত নীলগাইটির ডাক্তারি পরীক্ষা করেন আটোয়ারী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, মানুষের তাড়া খেয়ে দীর্ঘ পথ দৌড়ানোর কারণে নীলগাইটি হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছে।

পঞ্চগড় বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা হৃষিকেশ চন্দ্র রায় বলেন, নীলগাই আমাদের দেশে বিলুপ্তপ্রায় এক শ্রেণির প্রাণী। এখনো ভারতে কিছু কিছু জায়গায় নীলগাইয়ের দেখা মিলে। ভারত থেকেই ওই নীলগাইটি সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আসে। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ নীলগাইটির ওজন আড়াই থেকে তিন মণ, উচ্চতা ৪ ফুট, লম্বা ৮ ফুট, গায়ের রং ধূসর। নীলগাইটি টাঙ্গাইল ভুয়াপুরের বঙ্গবন্ধু সেতু আঞ্চলিক মিউজিয়ামে সংরক্ষণের জন্য পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.