আমাদের জীবনে ঘুমের প্রয়োজনীয়তা বলে শেষ করা যাবে না। বেঁচে থাকার জন্য প্রথম যে জিনিসগুলো আমাদের প্রয়োজন তার অন্যতম হচ্ছে ঘুম।

ঘুমের মাধ্যমে মহামারি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও কমে যায়। সম্প্রতি এক গবেষণায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার হাত থেকে বাঁচতে ঠিকঠাক ঘুমালেই হবে।
জার্মানি, ইটালি, স্পেন, যুক্তরাষ্ট ও যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যকর্মীদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আটজন বিজ্ঞানী এই সমীক্ষা চালিয়েছেন।

বিএমজে নিউট্রিশন প্রিভেনশন অ্যান্ড হেলথ নামের এক অনলাইন ম্যাগাজিনে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত বাইরে যান ও বেশি পরিশ্রম করেন কিন্তু ভালো ঘুম হয় না তাদের করোনা হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। গবেষণা আরও বলেছে যে,রাতে একজন যতক্ষণ ঘুমাচ্ছেন, প্রতি এক ঘণ্টা অন্তর করোনা হওয়ার আশঙ্কা ১২ শতাংশ করে কমতে থাকে।

মোট ২ হাজার ৮৮৪ জন স্বাস্থ্যকর্মী এই সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। যার মধ্যে ৫৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। যারা বেশি ঘুমিয়েছেন তাদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা কম ছিল।

প্রতিদিন ৬-৭ ঘণ্টার গড় ঘুম ছাড়িয়ে যদি এক ঘণ্টা করে বাড়তি ঘুমানো যায় তাহলেই করোনার আশঙ্কা কমে যায় বলেও উল্লেখ করা হয় গবেষণায়।

পর্যাপ্ত ঘুম না হলে বা কোনো কারণে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে জীবাণু সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়।

আজকাল প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যু, সচেতন হোন…মহামারি করোনা থেকে দূরে থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.