পাকা আম ত্বকে মাখলেই ফিরবে উজ্জ্বলতা

লাইফস্টাইল ডেস্ক:

পাকা আমের হাজারো স্বাস্থ্য উপকারিতা আছে। ভিটামিন এ, বি, সি, ই সমৃদ্ধ পাকা আম শরীর এমনকি ত্বকের স্বাস্থ্য বজার রাখতেও খুবই উপকারী। ২০ ধরনের ভিটামিন ও মিনারেল আছে এই ফলে। এখন পাকা আমের মৌসুম। এ সময় সবার ঘরই নিশ্চয়ই পাকা আমের গন্ধে ম ম করছে!

চাইলে কিন্তু খাওয়ার পাশাপাশি পাকা আম মুখেও মাখতে পারেন। এতে লাভবান হবেন আপনিই। কারণ পাকা আমের গুণাগুণ ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে কাজ করে। ব্রণ থেকে ত্বকের কালচে দাগসহ রুক্ষ-শুষ্ক ত্বকের যত্নে ব্যবহার করতে পারেন আম।

বিশেষ করে গরমের এ সময় ত্বক হয়ে পড়ে নাজুক। এ ছাড়াও বাইরের খরতাপে ত্বকে সানট্যান পড়ার সমস্যা তো আছেই। সব মিলিয়ে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে আজই ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিতে ব্যবহার করুন পাকা আম। জেনে নিন পাকা কীভাবে ত্বকে ব্যবহার করবেন।

ওটমিল ও আমের ফেসপ্যাক

এই ফেস প্যাকটি ত্বকের মৃতকোষ দূর করে সহজেই। ওটমিল ও আম ত্বকের প্রাকৃতিক স্ক্রাবার হিসেবে কাজ করে। এজন্য পাকা আম চটকে দুধের সঙ্গে মিশিয়ে নিন।

এর সঙ্গে ওটমিলের গুঁড়ো মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করুন ১৫ মিনিট। এরপর স্ক্রাবিং করে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মহূর্তেই ত্বকে উজ্জ্বলতা ধরা দেবে।

আম ও মধুর ফেস প্যাক

এই ফেসপ্যাকটি আপনার ত্বককে মসৃণ এবং টোনড রাখতে সহায়তা করবে। যাদের ব্রণপ্রবণ ত্বক; তাদের জন্য এই ফেসপ্যাকটি বিশেষ কার্যকরী। কারণ এতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আছে, যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।

এজন্য প্রথমে পাকা আম চটকে এর সঙ্গে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এরপর মুখ পরিষ্কার করে ফেসপ্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। ২০ মিনিট ত্বকে রেখে এরপর ধুয়ে ফেলুন।

বেসন এবং আমের ফেস প্যাক

পাকা আম যেন পুষ্টিগুণে ভরপুর; ঠিক তেমনই বেসনেও আছে অনেক উপকার। গরমে যাদের ত্বকে সানট্যান পড়ে; তাদের জন্য এই ফেস প্যাক খুবই উপকারী। মধু একটি প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট এবং বাকি উপাদানগুলোও ত্বকের জন্য অনেক উপকারী।

এজন্য পাকা আম মিহি করে চটকে নিয়ে এর সঙ্গে বেসন ও আখরোটের গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মেশান। এই ফেসপ্যাকটি পরিষ্কার ত্বকে লাগান ১৫ মিনিটের জন্য। পরে স্ক্রাব করে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই ফেসপ্যাকগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি পাবেন জেল্লাদার কোমল ও দাগহীন ত্বক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.