হাতীবান্ধায় ট্রাক চাপায় শিশুসহ নিহত দুই

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ট্রাকের চাপায় আব্দুল্লাহ বিন নাঈম (৬) নামে এক শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় গুরুত্বর আহত অপর একজনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইমরান (২১) মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ঘাতক ট্রাকসহ চালক ও সহকারী চালককে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার আরডিআরএস অফিসের সামনে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত শিশু নাঈম উপজেলার বড়খাতা পূর্ব সাড়ডুবি গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে। সে হাতীবান্ধা ক্যামব্রিয়ান স্কুলের নার্সারী শাখার শিক্ষার্থী।অপর জন  ইমরান (২১) উপজেলার একই এলাকার আব্বাস আলী ছেলে।

জানা গেছে, বুধবার সকালে নাঈমকে নিয়ে বাবা ফারুক হোসেন ও চাচা ইমরান মোটর সাইকেলে করে স্কুলে নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে উপজেলার আরডিআরএস অফিসের সামনে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের উপর হঠাৎ মোটর সাইকেল নিয়ে পড়ে যান তারা। এ সময় দ্রুত গতিতে ছুটে আসা বুড়িমারীগামী একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১৫-৬৯০০) তাদেরকে চাপা দেয়। এতে আহত হন শিশু নাঈম ও তার চাচা ইমরান। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্মরত চিকিৎসক শিশু নাঈমকে মৃত ঘোষনা করেন। এসময় ইমরানকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইমরানের মৃত্যু হয়।

আটককৃত ট্রাক চালক আব্দুর রশিদ (৩৭) উপজেলার ফকিরপাড়া ইউপির দালাল পাড়া এলাকার মৃত আতাউরের ছেলে এবং সহাকারী চালক জেলাল হোসেন(২৬) জেলার পাটগ্রাম উপজেলার নবীনগর এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে।

হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের কর্মরত চিকিৎসক আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মিনতিয়াজ কবির বলেন, শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই মারা গেছে। এছাড়া এতে গুরুত্বর আহত একজনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাকিম দুইজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া চালক ও সহাকারি চালককে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.