আফগানদের বিপক্ষে সাকিব একাই সেরা হয়েছিলেন দু’বার

দেশের ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাই শুধু নেই। ‘পঞ্চ পান্ডবের’ বাকি সদস্য তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ আর মুশফিকুর রহিম ঠিকই আছেন।

কাল ২৩ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামে যে তিন ম্যাচের ওয়ানরডে সিরিজ শুরু হতে যাচ্ছে, তাতে টিম বাংলাদেশের শক্তির উৎস ও কেন্দ্রবিন্দুই ওই চার ‘পান্ডব।’

দেশের ক্রিকেটে পঞ্চ পান্ডবের অবদান অনেক। তারা বেশিরভাগ জয়ের রূপকার ও নায়ক এবং ইতিহাস সাক্ষী দিচ্ছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একদিনের ক্রিকেটে বাংলাদেশের সব ক’টা জয়ের স্থপতি এবং ম্যাচ জেতানো পারফরমারও সাকিব, তামিম, মুশফিক আর রিয়াদ।

আফগানদের সাথে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত যে ৫ ম্যাচে জয়ী হয়েছে, তার সবকটার ম্যান অব দ্য ম্যাচ ওই চার পাণ্ডব। এর মধ্যে ‘সব্যসাচি’ সাকিব একাই দু’বার ম্যাচ জিতিয়ে হয়েছেন সেরা। আর মুশফিক, তামিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ সেরা হয়েছেন একবার করে।

২০১৪ সালের ১ মার্চ ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে দু’দলের প্রথম সাক্ষাতে ৩২ রানে জেতা আফগাস্তিানের জয়ের নায়ক ছিলেন শামিউল্লাহ শেনওয়ারি (৮৯ রান ও ১/২৩)। ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় আইসিসি বিশ্বকাপে আফগানদের ১০৫ রানে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নেয় মাশরাফির বাংলাদেশ।

৫৬ বলে ৭১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হন মুশফিকুর রহিম। পরের বছর (২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর) তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসে আফগানিস্তান। ওই সিরিজে টাইগাররা জয়ী হয় ২-১ এ। শেরে বাংলায় প্রথম ম্যাচে সাকিব আল হাসানের অসাধরণ অলরাউন্ড পারফরমেন্সে (৪০ বলে ৪৮ ও ২/২৬) ৭ রানে জয়ী হয় বাংলাদেশ। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন সাকিব।

দ্বিতীয় ম্যাচ ২ উইকেটে জিতে সিরিজে ফেরে আফগানরা। মোহাম্মদ নবি হন ম্যাচ সেরা। সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ ১৪১ রানে জয় পায়। দুর্দান্ত শতক (১১৮ বলে ১১৮) উপহার দিয়ে ম্যাচ সেরা ও সিরিজ সেরা হলেন তামিম ইকবাল।

এরপর ২০১৮ সালে এশিয়া কাপ রশিদ খানের চৌকশ নৈপুণ্যের কাছে (৫৭ রান ও ২/১৩) ১৩৬ রানের বিশাল ব্যবধানে জয়ী হয় আফগানরা। ওই এশিয়া কাপের ফিরতি ম্যাচে বাংলাদেশ ৩ রানে জয়ী হয়ে সমতা ফেরায়। ম্যাচসেরা হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (৭৪ রান ও ১/১৭)।

২০১৯ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সর্বশেষ সাক্ষাতে সাকিবের একার নৈপুণ্যের দ্যুতিতে ভষ্ম হয় আফগানিস্তান। বিশ্বকাপে সাকিবের সেরা অলরাউন্ডিং পারফরমেন্সের (৫১ ও ৫/২৯) সামনে দাঁড়াতেই পারেনি আফগানরা। বাংলাদেশ পায় ৬২ রানের জয়। খুব স্বাভাবিকভাবেই এমন দারুণ অলরাউন্ড পারফরমেন্সে ম্যাচ সেরা হন সাকিব।

মোটকথা, পঞ্চ পান্ডবের চারজনের বাইরে আর কেউ কখনো আফগানদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ম্যাচ জিতিয়ে সেরা হতে পারেননি। বুধবারও কী সে ধারাই অব্যাহত থাকবে? নাকি নতুন কেউ ম্যাচ জিতিয়ে নিজেকে মেলে ধরবেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published.