এ কে সরকার শাওন:
হরিলাল মুচি লক্ষ্মীরও অরুচি
হাড্ডিসার ষাটোর্ধ্ব!
সহায় সম্বলহীন স্বজন বিহীন
অতি ক্ষীণকায় মর্দ!
 
নাম হরি! যার দাস রবি!
তাঁর কেন করুণ দশা?
ধনতন্ত্রের অভিশাপে দেশ
নিম্নবিত্তের নিত্য দুর্দশা!
 
উলিপুরের খাস জমিতে
হাতিয়া বাঁধে নিবাস!
তাঁর তরে সব রূপকল্প
নিত্য করে উপহাস!
 
ভাঙ্গা ঘর, চালা নড়বড়,
বেড়াগুলো পড়ছে খসে!
চৌকি জানালা খেয়েছে ঘুনে
দরজাটা কাঁপে বাতাসে!
 
ঘুনে পোকারা কতো ভাগ্যবান,
অন্ন বাসস্থানের নাই অভাব।
আশ্রয়ণ প্রকল্প, বয়স্ক ভাতা,
দালালের ধার ধারে না ওরা;
যেন রাজার মত ভাবসাব!
 
পোকা হয়ে রাজার মত চলে
মানুষ চলি পোকার মতো!
অভাব অনটন খুন খারাপি;
সভ্য মানুষ উন্নত কতো!
 
পদব্রজে ঘুরে সকাল সাঝে,
মুচির কাজে আয় সামান্য!
সারা দিনে কুড়ি থেকে আশি
সে টাকায় জোটে না অন্ন।
 
টিসিবির ট্রাকের পিছে
চীনের প্রাচীরের মত লাইন!
বয়সের ভারে পা টন টন করে
ভীড়ে দালালরা শেখায় আইন!
 
অভাবের তাড়নায়
সংসার ছারখার!
স্ত্রী ছেলে পগারপার ;
কি ইদুরে কপাল তার!
 
বিয়ের পরে বড় মেয়ে দূরে
ওর খোঁজ নাই কতোদিন!
ছোট কন্যা সুমীর চোখে বন্যা
হরিলাল রবিদাস নিদ্রাহীন!
 
খবর প্রকাশের পরে
সবাই বসে নড়েচড়,
কতো সুহৃদ পড়ে হামলে;
অন্তরালে হাজারো হরিলাল
ধুঁকে ধুঁকে মরে অশ্রুজলে!
 
ইংরেজ নাই হার্মাদ নাই
নাই পাকিস্তানী শোষণ!
তবু কেন হরিলালদের
আজো দুর্বিষহ জীবন?
 
হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর কানে
সরস ভাষণ ঠেকে শব্দদূষণ!
কেন হয় না পঞ্চাশ বছরেও
সম্পদের সুসম বন্টন?
 
কবিতাঃ হরিলাল মুচি
কাব্যগ্রন্থঃ চেয়ার ও চোর
এ কে সরকার শাওন
শাহনাজ ভবন, উত্তরখান, ঢাকা।
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.