ভূরুঙ্গামারীতে হঠাৎ ঝড়ে লন্ডভন্ড অনেক ঘড়বাড়ি

আরিফুল ইসলাম জয়,
কুড়িগ্রামঃ
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে বয়ে গেল বছরের প্রথম কাল বৈশাখী ঝড়। হঠাৎ করে শুরু হওয়া ঝড়ে কাঁচা ঘরবাড়ি,  টিনের চাল, গাছপালা ভেঙে গেছে। গম, ভুট্টা, সবজি, মরিচ, বেগুন, আলুসহ উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষক। এদিকে বিদ‍্যুৎ সররাহ বন্ধ আছে।
শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি ) বিকেল ৪.৪০ মিনিটের  দিকে শুরু হয় কালবৈশাখী ঝড়। প্রায় ৩০মিনিট  ব‍্যাপি চলে ঝড়ের তান্ডব।হঠাৎ প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়া  ও শিলা বৃষ্টির  তাণ্ডবে ব‍্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষক।এতে ঝড়ে গেছে সদ্য গুটি আসা আম, আমের মুকুল ও লিচুর মুকুল। পানি জমেছে আলুর ক্ষেতে।
ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা জানান, এলাকার বেশির ভাগ আলুর জমিতে অতিরিক্ত বৃষ্টির পানি বেঁধে আলুর ফলনের ব্যাপক হ্রাস পাওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। এতে করে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবেন কৃষকরা।
এদিকে বৈশাখ মাস শুরু না হতেই ফাগুনেই হঠাৎ কালবৈশাখি ঝরে হাট-বাজারে আসা  মানুষ আতঙ্কিত হয়ে দিক বিদিক ছুটা ছুটি শুরু করেন। এই ঝড়কে বছরের শুরুতে প্রকৃতির অশনিসংকেত বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে ।
উপজেলা কৃষি বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা জানান, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ এর কাজ চলছে।
কুড়িগ্রাম রাজারহাট কৃষি আবহওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিসুর রহমান জানান, আসলে ঝড়ের গতিবেগ পরিমাপের যন্ত্র আমাদের নেই। তবে ঝড়ের গতিবেগ ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার হতে পারে। আর বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে ৫.২ মিমি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.