গাইবান্ধায় হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদের নিয়োগে ডিসির সতর্কবার্তা

রওশন আলম পাপুল:
গাইবান্ধার ৩১টি ইউনিয়ন পরিষদে হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১১ মার্চ। এজন্য আর্থিক লেনদেন করে কেউ যাতে প্রতারিত না হয় সেজন্য সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি সম্বলিত একটি সাইনবোর্ড টাঙিয়েছে জেলা প্রশাসন।

সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তির এই সাইনবোর্ডটি টাঙানো হয়েছে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রবেশের মূল গেইটে। কোন রকম অনিয়ম তথা আর্থিক লেনদেনের তথ্য কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের কথাও জানানো হয় সেই সাইনবোর্ডে।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সাত উপজেলা নিয়ে গঠিত গাইবান্ধা জেলা। এই সাত উপজেলায় রয়েছে ৮১টি ইউনিয়ন পরিষদ। এর মধ্যে ৩১টিতে হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় ২০১৯ সালের ২১ ডিসেম্বর। পরে নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হয় ২০২১ সালের ২ এপ্রিল। এর আগেই ২০২১ সালের ৩১ মার্চ অনিবার্যকারণবশত নিয়াগ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়।

এবার এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১১ মার্চ।
শনিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সতর্কীকরণ এই সাইনবোর্ডটিতে লেখা রয়েছে- গাইবান্ধা জেলা প্রশাসনের আওতাধীন ইউনিয়ন পরিষদ হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটরের ৩১টি পদে জনবল নিয়োগের কার্যক্রম চলছে। গাইবান্ধা জেলা বাছাই কমিটি কর্তৃক সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা ও সততার সাথে এই নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। প্রলোভনে পড়ে বা প্রতারণার শিকার হয়ে নিয়োগ লাভের প্রত্যাশায় আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদের নিয়োগ কার্যক্রমে কোনরূপ আর্থিক লেনদেন না করার জন্য এবং কোন প্রকার অসদুপায় অবলম্বন না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হল। বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, কোন রকম অনিয়ম তথা আর্থিক লেনদেনের তথ্য কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অনুরোধক্রমে- মো. অলিউর রহমান, জেলা প্রশাসক, গাইবান্ধা।

এ বিষয়ে গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. অলিউর রহমান বলেন, মানুষকে সচেতন করতে শহরে বেশি কয়েকটি স্থানে এই সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে। কেননা নিয়োগ অনুষ্ঠিত হবে সম্পুর্ণ স্বচ্ছতা, সততা ও নিরপেক্ষতার সাথে। যোগ্য ও মেধাবীরাই এই চাকরি পাবেন। তাই কারো কোন সুপারিশ নেওয়া হবেনা। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, অনেকে আর্থিক লেনদেন করতে পারেন। তাই তাদেরকে বলবো কেউ যেন এই নিয়োগের বিষয়ে কোন আর্থিক লেনদেন না করেন। করলে তিনি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। কেননা দেখা গেল যে, তিনি তার যোগ্যতায় চাকরি পেলেন কিন্তু কারো সাথে যোগাযোগ করায় মাঝখানে সেই ব্যক্তি সুবিধা নিয়ে চলে গেল। কেউ আর্থিক লেনদেনে জড়িত থাকার তথ্য কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.