রংপুরে অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে বসতবাড়িসহ জমি উদ্ধারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

রংপুর প্রতিনিধিঃ

সন্ত্রাসি ও দখলদারদের অব্যাহত হুমকিতে নিজের ক্রয়কৃত জমি ও বসতবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন অসহায় রেজওয়ান আহমেদ রাজুসহ তার পরিবার।

দখলদার সন্ত্রাসিদের বিরুদ্ধে মামলা করেও পাচ্ছেন না কোন সুফল। জমি ও বসতবাড়ি উদ্ধারসহ নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অসহায় পরিবারটি।

রোববার দুপুরে রংপুর মহানগরীর স্থানীয় একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন,লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার রসুলগঞ্জ গ্রামের মোঃ হায়দার হোসেনের ছেলে রেজওয়ান আহমেদ রাজু।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, রংপুরের বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব করিম উদ্দিন ভরসার ছেলে কামরুল ইসলাম ভরসার নিজের রংপুর সদর উপজেলাধীন রংপুর-বাইপাস সড়কের ৫ম কিঃমিঃ এ (২০ মেগাওয়াট) অবস্থিত জে.এল নং- ৯৬, আলমনগর মৌজাস্থিত খতিয়ান নং-১৫০৬, হাল খতিয়ান নং-১৪৫৩, সাবেক দাগ নং-২২৬০, কিষান হিমাগারের পার্শ্বে জমির পরিমান- ০১.০৮ শতাংশের মধ্যে (৩০+২৪) মোট ৫৪ শতক জমি বিগত ২৮/০১/২০০৯ইং তারিখে এবং ১৪/০৫/২০০৯ইং তারিখের দলিল নং- যথাক্রমেঃ ১১১৩/৯ ও ৬০৩০/৯ মূলে আমি ও আমার বড় ভাই মোঃ টিপু সুলতান ক্রয় করি। ওই জমিতে বসতঘর ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করাসহ বিভিন্ন জাতের বনজ ও ফলজ গাছ লাগিয়ে ভোগদখল করিয়া আসিতেছি। সেখানে আমাদের নামে বিদ্যুৎ সংযোগও নিয়েছি। ওই জমির খাজনা-খারিজ পরিশোধ করা হয়েছে।

এছাড়া আমার জমি সংলগ্ন যে জমি রয়েছে তা সড়ক ও জনপদ বিভাগের কাছ থেকে বৈধভাবে লিজ নিয়েছি। কিন্তু সম্প্রতি ওই এলাকার মোঃ আফতাবুর রহমান ওরফে রুমন ওরফে হিমু (৪০) ও আলহাজ্ব করিম উদ্দিন ভরসার স্ত্রী মোছাঃ আফলাতুন নাহার তাদের অসৎ উদ্দেশ্যে আমার কবলাকৃত ভোগদখলীয় জমি বেদখল করার পায়তারা করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে।
এ অবস্থায় গত ১১ ফেব্রুয়ারি আফলাতুন নাহার তার সন্ত্রাসি বাহিনীসহ আমার ভোগ দখলীয় জমিতে অবৈধভাবে প্রবেশ করে আমার সীমানা প্রাচীর আংশিক ভাংচুর করে মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমার বাবা বাদি হয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং-৩১, তারিখ- ১৮/০২/২০২২ খ্রি:। সন্ত্রাসি কর্তৃক ভাংচুরকৃত সীমানা প্রাচীর ও বসতবাড়ীর পুনঃনির্মাণ কাজ করাকালে ২৬ ফেব্রুয়ারি বিকাল অনুমান ৩টার সময় সন্ত্রাসি মোঃ আফতাবুর রহমান ওরফে রুমন ওরফে হিমু, মোছাঃ আফলাতুন নাহার ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকারিয়া আলম শিবলু (৪৫)সহ অজ্ঞাতনামা ১৫/২০ জন সন্ত্রাসি ধারালো ছোড়া, চাপাতি, বেকী, চাইনিজ কুড়াল ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ওই জমিতে অবৈধভাবে প্রবেশ করে এবং সীমানা প্রাচীরের কিছু অংশ ভাংচুর করে।

এ ঘটনায় ২৮ ফেব্রুয়ারি রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা ১৩০৭/৪১, তারিখঃ ২৮/০২/২০২২। এভাবে চলার এক পর্যায়ে গত ৩ মার্চ ৪০/৫০টি মোটর সাইকেলে করে মোঃ আফতাবুর রহমান ওরফে রুমন ওরফে হিমু, মোছাঃ আফলাতুন নাহার ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকারিয়া আলম শিবলু (৪৫)সহ ৭০/৮০ জন অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসি পুনরায় ধারালো অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বেআইনী ভাবে আমার জমিতে প্রবেশ করে। এ সময় তারা আমার ঘরের তালা ভেঙ্গে কিছু মালামাল ভাংচুর করে এবং কিছু মালামাল লুট করে নিয়ে যায় এবং মোছাঃ আফলাতুন নাহার ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকারিয়া আলম শিবলুর নির্দেশে অন্যান্য সন্ত্রাসিরা আমার লেবার-মিস্ত্রিদের মারপিট করে কাজ বন্ধ করে দেয়।

পরে প্রায় ২০ ফিট সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেলা হয়। আমি প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসি শিবলু আমাকে ধাক্কাধাকি করে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার দিকে ধারালো ছোড়া নিক্ষেপ করে। আমি তাৎক্ষনিক সরে যাই। পরে র‌্যাব ও পুলিশের বিষয়টি অবগত করলে তারা তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে চলে আসে এবং সন্ত্রাসিদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। সমস্যার সমাধান না করেই র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চলে যায় এবং সন্ত্রাসিরা আমার জায়গা দখল করে তারা সেখানে অবস্থায় নেয়। তারা এখন পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করছেন। এ ঘটনায় আমি পুনরায় রংপুর কোতয়ালী থানায় একটি এজাহার দায়ের করি। যা এখন তদন্তাধীন রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার সন্ত্রাসিদের অব্যাহত হুমকি-ধামকীতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। জমি ও বাড়ি থেকে আমার কেয়ার টেকারকে মারপিট করে বলপূর্বক সন্ত্রাসিরা বের করে দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রেজওয়ান আহমেদ রাজুর বাবা মোঃ হায়দার হোসেন, এলাকাবাসী ইফতেখার আহমেদ, মাসুম আলম, তপুসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

এদিকে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকারিয়া আলম শিবলু সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাদের পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.