লালমনিরহাটে একসঙ্গে ৩ পুত্রসন্তান জন্ম দিল রুজিনা

একসঙ্গে তিন পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন রুজিনা খাতুন (২৮) নামের আনসার ও ভিডিপির এক সদস্য। বুধবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে রংপুরের প্রাইম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে তিন শিশু ভূমিষ্ঠ হয়েছে।

রুজিনা খাতুন লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাটের বাসিন্দা এবং কুড়িগ্রাম জেলা আনসার ও ভিডিপির হিসাবরক্ষক গোলাম মোস্তফা রাঙ্গার স্ত্রী। রুজিনা নিজেও আনসার ও ভিডিপি সদস্য।

গোলাম মোস্তফা রাঙ্গা জানান, ২০১৩ সালে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের মীরেরবাড়ী গ্রামের বাঙ্গালপাড়ার ইয়াকুব আলী খন্দকারের মেয়ে রুজিনা খাতুনকে পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন তিনি। স্ত্রীর হরমোনজনিত সমস্যার কারণে পাঁচ বছর পর্যন্ত গর্ভধারণ না হওয়ায় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিয়ে বিয়ের পাঁচ বছর পর একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন রুজিনা।

রাঙ্গা আরও জানান, দ্বিতীয়বারের মতো আবার অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে প্রাইম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক সোনালী রানী মুস্তফীর পরামর্শে আল্ট্রাসনোগ্রাম করেন। নিয়মিত কয়েকবার চেকআপে দুটি ছেলেসন্তানের কথা জানা গেলেও অন্যটির কথা সিজারের আগ পর্যন্ত জানা যায়নি। অবশেষে বুধবার দুপুরে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দেন রুজিনা।

চিকিৎসক সোনালী রানী মুস্তফীর বলেন, বুধবার দুপুরে রুজিনার সিজার করেছি। হরমোনজনিত কারণে প্রথম সন্তান হওয়ার আগেও আমি চিকিৎসা করেছি।

দ্বিতীয়বার গর্ভবতী হওয়ার আগে এবং পরেও আমিই দেখতাম। নিয়মিত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়েছি। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় সিজারের মাধ্যমে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দেন রুজিনা। তবে সন্তানদের ওজন কম এবং দেড় মাস আগে সিজার করায় তাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।